Breaking News
Home / News / রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের কথিত বান্ধবী এলিনা কাবায়েভা যমজ সন্তানের মা হয়েছেন।

রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের কথিত বান্ধবী এলিনা কাবায়েভা যমজ সন্তানের মা হয়েছেন।

রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের কথিত বান্ধবী এলিনা কাবায়েভা যমজ সন্তানের মা হয়েছেন। মস্কোতে গত মাসে একটি ভিআইপি ক্লিনিকে তাঁর যমজ সন্তান হয় বলে বিভিন্ন আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমের প্রতিবেদনে প্রকাশিত হয়েছে।ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম দ্য সানের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ৩৬ বছর বয়সী সাবেক জিমন্যাস্ট এলিনা কাবায়েভা মস্কোর একটি ভিআইপি ক্লিনিকে যমজ পুত্রসন্তানের জন্ম দিয়েছেন। এ সময় হাসপাতালে নিরাপত্তাব্যবস্থা এতটাই শক্তিশালী রাখা হয়েছিল যে, কাবায়েভার অস্ত্রোপচারের সময় ক্লিনিকের পুরো একটি তলায় আর কাউকে প্রবেশ করতে দেওয়া হয়নি!ভ্লাদিমির পুতিনের ব্যক্তিগত খবর কখনোই রাশিয়ার গণমাধ্যমে প্রকাশ করে না ক্রেমলিন। কিন্তু কাবায়েভার সন্তান প্রসবের খবরটি বেশ কয়েকটি রুশ গণমাধ্যমে চাউর হয়ে যায়। যদিও পরে এ–সংক্রান্ত সব সংবাদ সরিয়ে নেওয়া হয়, কিন্তু ততক্ষণে পুতিনের বান্ধবীর মা হওয়ার খবর অনেক গণমাধ্যমেই প্রচার হয়ে গেছে।সার্জেই কেনেভ নামের একজন অনুসন্ধানী সাংবাদিক প্রথম এই খবর দেন। তিনি জানান যে, রাশিয়ার কুলাকভ রিসার্চ সেন্টার ফর অবস্টেট্রিকস, গাইনোকলজি অ্যান্ড পেরিনাটোলোজিতে অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে দুই ছেলে সন্তানের জন্ম দিয়েছেন কাবায়েভা। কাবায়েভা হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার আগে অসংখ্য নিরাপত্তা কর্মকর্তা পুরো হাসপাতালকে নিরাপত্তার চাদরে ঢেকে ফেলেন বলেও জানান তিনি।সার্জেই কেনেভ বলেন, কাবায়েভা ভর্তি হওয়ার পর ডেলিভারি ওয়ার্ড থেকে অর্ধেক মেডিকেল টিমকেই বের করে দেওয়া হয়েছিল। ইতালি থেকে বিখ্যাত একজন চিকিৎসক এসে অস্ত্রোপচার করেন। তবে ইতালির সেই চিকিৎসকের নাম প্রকাশ করেননি কেনেভ।পুতিনের বান্ধবী ছাড়াও নিজ পরিচয়েও সমান উজ্জ্বল কাবায়েভা। দুটি অলিম্পিক পদকজয়ী কাবায়েভা রাশিয়ার ইতিহাসেরই অন্যতম সেরা জিমন্যাস্ট। দুটো অলিম্পিক পদক ছাড়াও ১৪টি বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপ পদক ও ২৫টি ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপ পদকও জিতেছেন তিনি।

About hasan mahmmud

Check Also

হাজারো পথচারীদের মাঝে খাবার বিতরণ করলেন বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও দানবীর মোস্তফা কামাল পাশা তাপস

২৪ এপ্রিল শনিবার রমনা থানাধীন মালিবাগের মৌচাক মার্কেট প্রাঙ্গণে বেলা ৩টা থেকে বিকাল সাড়ে ৪টা …

Leave a Reply